বেসামাল কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে উপজেলা বিএনপিকে বিতর্কিত করার চেষ্টায় জুয়েল সিকদার

বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি-
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বর্জন করে অনেকটাই ইমেজ সংকটে রয়েছে বিএনপি। যে কারণে দলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা হতাশায় ভুগছে। আবার বিএনপির অনেক নেতা-কর্মী মামলা হামলার শিকার হয়ে জেলহাজতে রয়েছে। অনেক নেতা-কর্মী রয়েছেন বাড়ি ঘর ছাড়া। ঠিক সেই মুহূর্তে বাকেরগঞ্জ উপজেলা বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব যদি দলের সিদ্ধান্তকে অমান্য করে আওয়ামী লীগের সাথে আঁতাত করে দলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা এমন নেতৃত্বকে মানতে নারাজ।

খোঁদ উপজেলা বিএনপি, যুবদলের ও ছাত্রদলের তৃণমূল নেতা-কর্মীদের অভিযোগ, বেসামাল কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে বাকেরগঞ্জে বিএনপিকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছে উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ন-আহবায়ক জিয়াউল আহসান জুয়েল সিকদার। দুধল ইউনিয়নের সাবেক এ চেয়ারম্যান এক যুগেরও বেশি সময় বিএনপির সাইনবোর্ড লাগিয়ে দলে পদপদবী আঁকড়ে ধরে বিভিন্ন সময় ফাঁয়দা লুটেছেন।

স্থানীয় নেতাদের দাবি, কেন্দ্রের নির্দেশ প্রতিটি উপজেলায় দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করবেন। কিন্তু তিনি তার পরিবর্তে নিজ দলের লোকদের হ্যারেজ করে প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের সাথে আঁতাত করছে। এমনকি রাজনীতির গভীর খাদের কিনারে বিএনপি থাকলেও বিএনপি নেতা জুয়েল শিকদার উপজেলা বিএনপির কার্যক্রমকে বিতর্কিত করার ব্যর্থ চেষ্টা চালাচ্ছে। বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলনের ঘোষণা থাকলেও জুয়েল শিকদার কখনো সেই আন্দোলনের সাথে একাগ্রতা পোষণ করেননি। কিংবা খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনে কখনো অংশগ্রহণ করেননি।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপির হাই কমান্ড কেন্দ্রিয়ভাবে সারাদেশে নির্বাচন বর্জন করে বিএনপির নেতা-কর্মীদের ভোটদান থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেয়। তা সত্ত্বেও বাকেরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ন-আহবায়ক জিয়াউল আহসান জুয়েল সিকদার উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রাজিব আহম্মদ তালুকদারের কাপ-পিরিচ মার্কার পক্ষে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। তিনি তার দুধল ইউনিয়নের কৃষ্ণকাঠী গ্রামের বাড়িতে কাপ-পিরিচ মার্কার নির্বাচনী অফিস স্থাপন করে সেখান থেকে নিয়মিত প্রচার-প্রচারণা, কর্মীদের মাঝে টাকা বিতরণ এবং নির্বাচনের দিন সকাল থেকে দিনব্যাপী নির্বাচনী স্লিপ ও টাকা বিতরণ করেন।বিএনপির নেতাদের অভিযোগ, জিয়াউল আহসান জুয়েল সিকদার কেন্দ্রিয় বিএনপির দলীয় নির্দেশ অমান্য করে আওয়ামী লীগ নেতা রাজিব আহম্মদ তালুকদারের নিকট থেকে মোটা অংকের টাকা গ্রহন করে তার কাপ-পিরিচ মার্কার নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেছেন। এ ঘটনায় উপজেলা বিএনপি নেতাদের মনে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। তাদেরকে এ ক্ষোভ যে কোন সময় বিক্ষোভে রুপ নিতে পারে। বিএনপির তৃণমূল নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী অভিযুক্ত উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক জিয়াউল আহসান জুয়েল শিকদারের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

এবিষয়ে জানার জন্য অভিযুক্ত উজালা বিএনপি সিনিয়র যুগ্ন-আহবায়ক জিয়াউল আহসান জুয়েল সিকদারের ব্যবহৃত মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।


Notice: ob_end_flush(): Failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/satkhirabarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 5427

Notice: ob_end_flush(): Failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/satkhirabarta/public_html/wp-content/plugins/really-simple-ssl/class-mixed-content-fixer.php on line 107