ভাঙ্গায় ২ সপ্তাহ পরও থেমে নেই ভাংচুর ও লুটপাট, খাবার পানির তীব্র সংকট, মানবতার জীবন যাপন।

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় সংঘর্ষে আলমগীর মাতুব্বর নিহতের ঘটনায় ২ সপ্তাহ পার হলেও থেমে নেই বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাট।

এদিকে নিহতের পক্ষের আদম কাওছার ও জলিল মাতুব্বরের নেতৃত্বে তার লোকজন প্রতিপক্ষের বাড়ির টিউবওয়েল লুঠ করায় খাবার পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।

এসব বাড়িতে পুরুষশুন্য হওয়ায় প্রতিদিন ঘটছে ভাংচুর, হামলা ও লুঠপাট। বর্তমানে খাবার ও পানির সংকটের কারনে মহিলা, শিশু ও বৃদ্ধারা মানবতার জীবন যাপন করছে।

এবিষয় (আজ রবিবার দুপুরে )সেলিনা বেগম জানায়, সরকারি জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গত ১৩ মে শনিবার সন্ধ্যায় সংঘর্ষে আহত আলমগীর মাতুব্বর (৬০) চিকিৎসা অবস্থায় পরদিন রবিবার সকালে মারা যায় ।

মৃত্যুর সংবাদ এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে নিহতের দলের জলিল, আদম কাওছার ও আইয়ুব মাতুব্বরের লোকজন প্রতিপক্ষ দলের সরো ও বাবলু মাতুব্বরের লোকজনের অর্ধশত বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুঠপাট করে সবকিছু নিয়ে যায় ।

ঘটনাটি ২ সপ্তাহ পার হলেও থেমে নেই ভাংচুর ও লুঠপাট। প্রতিটি বাড়ির টিউবওয়েল লুটে নেওয়ায় আমাদের খাবার পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। পাশের গ্রাম থেকে পানি এনে কোন রকম মানবেতর জীবনযাপন করছি। আজ রবিবার দুপুরে ৫ মন ধান ও শনিবার রাতে ৩টি টিউবওয়েল ও ঘরের দরজা খুলে নিয়ে গেছে।

তবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ মধ্যে কাওছার, সরোয়ার, মোসারেফ, পাননাল, বাবলু, ছানু, দুলু,, আবেদআলী, গফফার মাতুব্বর সহ সবার বাড়ির মালামাল সোনাদানা, টাকা পয়সা, মোবাইল, ধান, চাল, পিয়াজ সহ থালাবাটি পর্যন্ত নিয়ে গেছে।

উল্লেখ, গত ১৩ মে সংঘর্ষের আহত আলমগীর মাতুব্বর ১৪ মে শনিবার সকালে মারা যায়। এঘটনায় নিহতের স্ত্রী বিলকিস বেগম বাদি হয়ে ৫৭ জনকে আসামি করে ১৬ মে সোমবার দুপুরে ভাঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

এরপর এলাকা পুরুষ শুন্য হয়ে পড়লে এলাকার বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটতে থাকে।

ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ জিয়ারুল ইসলাম বলেন, সংঘর্ষে নিহত আলমগীরের স্ত্রী বিলকিস বেগম বাদি হয়ে ৫৭ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। অপর দলের ভাংচুর ও লুঠপাটের ঘটনায় ২টি মামলায় প্রায় ২ শ জনকে আসামি করে ২টি মামলা করেছে ।

লুঠপাট ঠেকাতে পুলিশকে কঠোর নিদের্শনা দিয়েছি। কিছু লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার করেছি। যাহারা মানুষের যান মাল ক্ষতি করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।


Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Notice: ob_end_flush(): Failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/satkhirabarta/public_html/wp-includes/functions.php on line 5427

Notice: ob_end_flush(): Failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/satkhirabarta/public_html/wp-content/plugins/really-simple-ssl/class-mixed-content-fixer.php on line 107