1. nazmulrj40@gmail.com : md nazmul : md nazmul
  2. mizansatkhirapress@gmail.com : Satkhira Barta : Satkhira Barta
  3. tasahmed7@gmail.com : satkhira barta : satkhira barta
  4. shohaghassan0912@gamil.com : মোহনা নিউজ : মোহনা নিউজ
সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন

ভাড়াটিয়া সেজে ফ্ল্যাট দখল ও চাঁদাবাজি মামলাঃ গ্রেফতার দুই আসামী জামিনে এসেই বাদীকে প্রণনাশের হুমকী।।

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১০ মার্চ, ২০২৩
  • ২৪৩ Time View

 

নিজম্ব প্রতিবেদক
রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানায় যৌথ মালিকাধীন আবাসিক প্রকল্প আপন নিবাসে অবৈধভাবে ফ্ল্যাট দখল করে অসামাজিক কার্যকলাপ ও চাঁদাবাজির কারনে দুই জনকে গ্রেফতার করেছে যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ।
যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ মঙ্গলবার দিবাগত রাতে মামলার এজাহারভূক্ত আসামী আবুল কালাম আজাদ এবং মো. শাকিলকে গ্রেফতার করে। থানা সূত্রে জানা গেছে, গ্রেফতারকৃতদের মঙ্গলবার কোর্টে পাঠানো হয়েছে। এই আবাসিক প্রকল্পের মালিকদের পক্ষে দায়েরকৃত এজাহারটি করেন মো. আনোয়ার হোসেন। যাত্রাবাড়ী থানা মামলা নম্বর ২৬, তারিখ-৬/৩/২৩। ধারা ৩৮৫/৫০৬।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আপন নিবাস নামে এই আবাসিক প্রকল্পে মালিকের সংখ্যা ৪৬ জন। এরমধ্যে মামলার প্রধান আসামী মো. আলমগীর হোসেন এই অংশীদারদেরই একজন। এই মামলার এজাহারভূক্ত আসামী এলাকার চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত আবুল কালাম আজাদ এবং এই বাড়ীর দারোয়ান মো. শাকিলের সহযোগিতায় অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে ৭টি ফ্লাট দখল করে। দখলকৃত এইসব ফ্ল্যাটে অসামাজিক কার্যকালাপ এবং প্রতিনিয়ত নানা বেআইনি কাজ চলে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এনিয়ে বাড়ির মালিকরা চরম আতঙ্ক এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এই বাড়ি দেখাশুনার জন্য মো. শাকিল নামে একজন কেয়ারটেয়ার নিয়োগ দেওয়া হয়। এই কেয়ারটেকারের মাধ্যমে ফ্ল্যাট ভাড়া নেন গ্রেফতারকৃত আসামী আবুল কালাম আজাদ। পরবর্তীতে আবাসন প্রকল্পের কর্তৃপক্ষ তার ভাড়াটিয়া সম্পর্কে জানতে এবং ভাড়াটিয়া তথ্য ফরম পূরণ করতে কেয়ারটেয়কার শাকিলকে নির্দেশ দেন। এই খবর পেয়ে আজাদ বাড়ির মালিকদের বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করেন এবং ভাড়াটিয়া তথ্য ফরম পূরণ করবে না বলে জানায়। পরে প্রভাব খাটিয়ে ৭টি ফ্ল্যাট দখল করে।

বর্তমানে নির্মাণাধীন ভবনটিতে ২০টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হয়েছে, আরও ২৫টি ফ্ল্যাট নির্মাণ অবশিষ্ট রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী জানান, এলাকায় সকল প্রকারের বেআইনি কাজের সাথে জড়িত গ্রেফতারকৃত এই সন্ত্রাসী আজাদ। এলাকায় সাধারন মানুষকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি, মাসোহারা, অবৈধ ভাবে ভূমি দখল, মাদক ব্যবসা, অসামাজিক কার্যকলাপসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করার অভিযোগ রয়েছে এই দখলদার আজাদের বিরুদ্ধে।

এদিকে মামলায় ধৃত আসামী আজাদ গত ৭ই মার্চ জামিনে এসে ১ নং আসামী আলমগীর হোসেন মিলে মামলার বাদী মোঃ আনোয়ার হোসেনকে প্রকাশ্যে মামলা তুলে নিতে বলে অন্যথায় প্রাণে মেরে ফেলার হুমকী প্রদান করে। এছাড়াও বাদী আনোয়ার হোসেনকে সহযোগিতা না করার জন্য এবং এই ভবনে বসবাস করতে হলে তাদের কথামত চলতে হবে বলে অন্যান্য ফ্ল্যাট মালিকদেরকেও হুমকীদেয় আজাদ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক জন বসবাসকারী ফ্ল্যাট মালিক প্রতিবেদককে জানান আমরা সন্ত্রাসী আজাদের ভয়ে ভিষণ শংকায় আছি সে কখন কাকে কি করে ফেলে বলতে পারিনা। সে সব সময় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে বেড়ায়, তার সাথে সবসময় ১০ থেকে ১৫ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী থাকায় আমরা ভয়ের মধ্যে থাকি। এখন আমাদের এলাকায় বসবাস করাই অসম্ভব প্রায় হয়েছে।

এ বিষয়ে মামলার বাদী মো. আনোয়ার হোসেন এ প্রতিনিধিকে বলেন, আমরা সীমিত আয়ের মানুষেরা অনেক কস্ট করে একটি স্বপ্নের আবাসন প্রকল্প গ্রহন করি। কিন্ত এই সব দুষ্টুচক্রের কারনে আমাদের সে স্বপ্ন ভেঙে যায়।
তিনি আরও বলেন, জীবনের নিরাপত্তা প্রদান, দখলকৃত ফ্ল্যাট উদ্ধার এবং দোষীদের দ্রত বিচারের দাবিতে আমরা আইনের আশ্রয় গ্রহন করেছি। অবৈধ দখলদার ও চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীরা গ্রেফতার হয়েছে। আমরা আইনের কাছে ন্যয়বিচার প্রত্যাশা করছি। ইতি মধ্যে গ্রেফতার হওয়া বিবাদী আসামী আজাদ বেড়হয়ে এসে পলাতক আসামী আলমগীরকে নিয়ে আমাকে মামলা তুলে নিতে বলে অন্যথায় তারা আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার প্রকাশ্য হুমকী দেয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

প্রধান উপদেষ্টা

মো: মোশারফ হোসেন
প্রযুক্তি সহায়তায়: csoftbd